টাকা দিয়ে যৌনতা কেনার দৌড়ে অবিবাহিত পুরুষদের হার মানাচ্ছেন বিবাহিত পুরুষরা! না লজ্জার কিছু নেই! সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় এমনটাই এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। তাতে বিবাহিত পুরুষরা নিঃসন্দেহে অস্বস্তি পড়বেন। একই সঙ্গে যৌনতা না কিনলেও স্ত্রীয়ের গোয়েন্দা নজরে পড়ে যেতে পারেন।

যৌনতা কারা কেনেন? বিবাহিত না অবিবাহিত পুরুষেরা? এই মর্মে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা চালায় দক্ষিণ আফ্রিকার উইটওয়াটারস্র্যান্ড ইউনিভার্সিটি ও বেলফাস্টের কুইনস ইউনিভার্সিটির দুই প্রফেসর। আর সেই সমীক্ষায় যে তথ্য উঠে এসেছে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য।

সমীক্ষা বলছে, এদিকে ঝোঁক শুধু যে অবিবাহিত পুরুষদের রয়েছে তা নয়। ঝোঁক রয়েছে বিবাহিত পুরুষদেরও। বরং সেই প্রবণতায় বিবাহিত পুরুষরাই কিছুটা এগিয়ে। ৪৪৬ জন পুরুষকে মুখোমুখি বসিয়ে প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে এই সমীক্ষা করা হয়। বেশিরভাগেরই বয়স ছিল ৩১ থেকে ৫০ বছর।

দেখা যায়, টাকা দিয়ে যৌনতায় যাঁরা অভ্যস্ত, তাঁদের মধ্যে অর্ধেকই হয় বিবাহিত নয়তো কোনও সম্পর্কে জড়িত আছেন। আর ৫২ শতাংশকে পুরুষকে পাওয়া যায় ‘সিঙ্গল’।কিন্তু, বিবাহিত পুরুষদের ক্ষেত্রে এই প্রবণতা কেন? কেউ কারণ হিসেবে বললেন, অনেকসময়ই মহিলাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের অভাব দেখা যায়। অনেকে আবার যৌনতাহীন, প্রেমহীন বিয়েকে দায়ী করলেন। কারোর মতে দায়হীন সম্পর্কের টানেই এই পথে পা বাড়ানো।